fbpx
हमसे जुड़ें

ইতিবাচক চিন্তাভাবনার অদ্ভুত শক্তি

पॉजिटिव थिंकिंग की शक्ति: सफलता कैसे मिलेगी | Positive Thinking |

अन्य भाषाएँ

ইতিবাচক চিন্তাভাবনার অদ্ভুত শক্তি

“হাসো, আনন্দ করো, কি জানি কাল আসবে কি আসবে না…”

“হ্যাঁ, এই ডায়লগটি বলা সহজ কিন্তু কীভাবে আমরা হাসবো ও খুশিতে থাকবো? আমার জীবনটা মজাদার নয় যে আমি হাসবো, অনেক সমস্যা আছে…চাকরী পাওয়ার টেনশন, বিয়ে হচ্ছে না, বাড়ি কিনতে হবে…”

আপনি যদি নিজেকে এই কথাগুলি দ্বারা ঘেরা অবস্থায় পান তাহলে আমিও আপনার সাথে রয়েছি, আপনি একা নন – এখন ত একটু হেসে দিন। মশাই, এই জীবনটি অত্যন্ত ক্ষুদ্র, প্রত্যেকদিন কোনো না কোনো ভাল কথা চিন্তাভাবনা করুন ও ইতিবাচক মানসিকতা পোষণ করুন, তখন আপনি ইতিবাচক চিন্তাভাবনার জাদু দেখতে পাবেন! 

हमसे chat करें

 ইতিবাচক চিন্তাভাবনার জাদু

ইতিবাচক চিন্তাভাবানা হল সেই সকল চিন্তাভাবনা অথবা কথা যা আমাদের খুশি দেয় ও খারাপ কথাগুলিকে দূর করে। এটা জরুরী নয় যে শুধুমাত্র বড় আনন্দ উদযাপনের সময়েই আমরা খুশি হবো। বৃষ্টির সময়ে পরিবার ও বন্ধুদের সাথে চা আর চপ খাওয়াতেও অনেক আনন্দ পাওয়া যায়। এটা আমাদের উপর নির্ভর করে যে বৃষ্টির সময়ে চপ খাওয়ার আনন্দ উপভোগ করবো অথবা বৃষ্টির সময়ে কারেন্ট চলে যাওয়ার কারণে বচসা করবো।

নেতিবাচক চিন্তাভাবনাগুলিকে আটকান

আমরা সবাই জানি যে বার্গার, পিজ্জা, চাউমিন, ইত্যাদির মতো জাঙ্ক ফুড আমাদের শরীরের জন্য ক্ষতিকারক এবং আমাদের উচিৎ এই সব খাবার থেকে দূরে থাকা। ঠিক এমন ভাবেই, নেতিবাচক চিন্তাভাবনা থেকে আমাদের দূরে থাকার প্রয়োজন আছে। এই ধরণের চিন্তাভাবনার লাভ কী, যেগুলি আমাদেরকে একটা কমপ্লেইন বক্স-এ (Complain Box) পরিণত করে? 

  • ও আমাকে এক মাস ধরে ফোন করেনি, ও একটা অহংকারী ও বাজে মতলবের মানুষ। 
  • আমার বেতন অনেক কম, খুব বেশী ইঙ্ক্রিমেন্ট হয় নি। 
  • আমার নিজের বাড়ি কবে হবে, ভাড়া বাড়িতে থাকতে আর ইচ্ছা করে না। 
  • কাশ, আমি আমার বন্ধুদের মতো যদি বিদেশ ভ্রমণ করতে পারতাম! 

এই ধরণের চিন্তাভাবনা শুধুমাত্র আমাদের চিন্তিত করে তোলে, ঈর্ষান্বিত করে তোলে অথবা নিজেকে একজন করুণার পাত্র হিসেবে দেখায়। আপনার প্রয়োজন আপনার ফোকাসকে পরিবর্তন করা। যখনই কোনো কিছু নেতিবাচক মনে হবে, তখনই সেটার মধ্যে কিছু ইতিবাচক বিষয় খুঁজুন।

 কীভাবে আমরা ইতিবাচক হতে পারি

রোমীয় ১২:২১ পদে লেখা আছে, “তুমি মন্দের দ্বারা পরাজিত হইও না, কিন্তু উত্তমের দ্বারা মন্দকে পরাজয় কর”।

বাইবেলের এই বাক্যটি আমাদের বলে যে যখনই কোনো মন্দ চিন্তাভাবনা আমাদের বিরক্ত করে তোলে, তখন আমরা যেন সেইগুলিকে ইতিবাচক চিন্তাভাবনা ও উত্তমের দ্বারা হারিয়ে দিই এবং আনন্দে থাকি। 

  • যখনই আপনার মনে হবে যে আপনার বসের সাথে কাজ করা অত্যন্ত কঠিন, এই ভেবে খুশিতে থাকুন যে আপনার কাছে একটা চাকরী আছে। 
  • যখন মনে হবে যে আপনার শরীরের কোনো ব্যাথা ঠিক হচ্ছে না, এই ভেবে খুশিতে থাকুন যে আপনার শরীরের প্রত্যেকটি অঙ্গ সুস্থ আছে। 
  • ঈর্ষা করা, বিরক্ত হওয়া, নিজের উপর করুণা করা বন্ধ করুন। 
  • হেল্পফুল হন
  • জীবনের প্রত্যেকটি ছোট ছোট বিষয়গুলি নিয়ে সেলিব্রেট করুন। 
  • সকালে যখন ঘুম ভাঙ্গবে তখন নিজেকে বলবেন, “আমি আজ আনন্দে থাকবো”, “আজকের দিনে কিছু ভাল হবে” – যেমন ভাববেন, তেমনই হবে। 

বিজ্ঞান আমাদের বলে যে ইতিবাচক চিন্তাভাবনা জীবনের প্রতি আমাদের দৃষ্টিকোণকে আরও উন্নত করে তোলে। 

আমাদের কাছে যা কিছু আছে, সেটা আমাদের হিসেবে কম মনে হতে পারে…অন্য কোনো ব্যক্তির দৃষ্টিকোণ থেকে দেখুন…তাহলে দেখবেন যে আমাদের কাছে যা কিছু আছে, তা অনেক। 

গীতসংহিতা ১১৮:২৪ পদে লেখা আছে, “অদ্য সদাপ্রভুর কৃত দিন; আমরা এই দিনে উল্লাস ও আনন্দ করিব”।

বাইবেল আমাদের বলে যে ঈশ্বর এই পৃথিবীকে সৃষ্টি করেছেন, রাত ও দিন সৃষ্টি করেছেন এবং তিনি প্রত্যেক দিনকে উত্তম করেছেন। তাহলে কেননা আমরা একসঙ্গে এই উত্তম দিনের আনন্দ উপভোগ করি এবং অনেক খুশিতে থাকি। 

এই বিষয়ে ইতিবাচক থাকুন এবং আপনার আনন্দ ভাগ করে নিন, এবং অধিক তথ্য জানার জন্য আমাদের সাথে কথা বলুন। আসু, একটা নতুন পথে পথ চলা শুরু করি! 

हमसे chat करें
आगे पढ़ना जारी रखें
आप इन्हे भी पढ़ना पसंद करेंगे ...
To Top